ভয়ঙ্কর ভূমি দরশু পিশাচ দের কবলে-রংপুর গংগাচড়া!

0
166

গংগাচড়া,(রংপুর)মোঃ জুয়েল ইসলাম জয়- প্রতিনিধি

সুত্রঃ স্থানীয় সংবাদ এর মাধ্যমে যানা গেছে  যে গত, ২৮/৮/২০২০ ইং রোজ শুক্রবার সকালে প্রতি দীনের ন্যায় জমিতে চাষ করতে যান, আলাল উদ্দিন (৭০) ও তার ছেলে ফজলুল করিম (২৭) সাং গ্ৰামঃ-দক্ষিণ পানা পুকুরে, (ফকির পাড়া) গংগাচড়া, রংপুর। রোজগার দীনের ন্যায় জমিতে চাষ শুরু করলে তাতে বাধা দেয় তার প্রতিবেশী মোঃ লাজু আহমেদ টুনু ও তার পরিবারের সদস্যরা।

এর পর যখন এক পর্যায়ে তারা জমিতে লোক জনের সমাগম ঘটায়, ঠিক সেই সময় ওই এলাকার মসজিদ কমিটির বেস কিছু সদস্য ও স্থানীয় ইউপি সদস্য সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি বিবেচনায় করে আলাল ও তার ছেলে ফজলুল করিম কে বলে আপনারা আপনাদের কাজ শেষ করে মসজিদে আসবেন। এই অবস্থাই তারা তাদের জমিতে কাজ শেষ করে মসজিদে আসেন, মসজিদ কমিটির সদস্যরা দুই পক্ষের সংঘর্ষে বন্ধের নির্দেশ দেন। কথা হয় এই মর্মে মসজিদ কমিটির সদস্যদের সঙ্গে, যতারিতি আলাল ও ছেলে ফজলুল করিম জমিতে কাজ শেষ করে মসজিদে আসেন দুই পক্ষের লোকজন।

তাদের কথা মসজিদ কমিটির সদস্যদের উপস্থিত হলে, জুম্মার নামাজের পর মুসুল্লিদের আলোচনায় অংশ নেন দুই পক্ষের লোকজন তারা উভয়েই মসজিদ কমিটির সদস্যদের কথা মেনে নিয়ে দুই পক্ষের লোকজন চলে যায়।

সেই দিনের শেষে দ্বিতীয় পক্ষের লোকজন সভায় দেয়া নির্দেশনা মানেন নি তাই তারা সংগোঠিত হয়ে জমিতে গিয়ে সকল ফসল বিনষ্ঠ করে।

এক পর্যায়ে জমিতে চাষ করা ফসল বিনষ্ঠ করে ও জমিতে লাগানো চারা গাছ গুলো ভেঙ্গে ফেলে এই বিষয়ে আলাল আর ছেলে ফজলুল করিম মসজিদ কমিটিকে যানায় যে জমিতে চাষ করা ফসল বিনষ্ঠ করে ও তার লাগানো চারা গাছ গুলো নষ্ট করে দেয়। এর পর মসজিদ কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতেই আলাল এর জমিতে চারা গাছ গুলো পুনোরায় জমিতে লাগানো হয়।

“তাহলে কিভাবে এখানে মসজিদ কমিটির অপোরাধ হয়? কি দোষ ছিল যে তারা সংগোঠিত হয়ে জমিতে গিয়ে সকল মসজিদ কমিটির সদস্যদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে।এবং এক পর্যায়ে তারা মসজিদ কমিটির সদস্যদের নামে মামলা করেন, ওতোপর পুলিশ ও গংগাচড়ার প্রফ এর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তারা সংগোঠিত হয়ে, তাদের উপর হামলা করে ও ওকষ্ট ভাসায় গালি গালাজ। আর হুমকির মুখে মসজিদ কমিটির সদস্যরা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে থানায় যায়।

তাদের নিরাপত্তার জন্য ও জমিতে লাগানো চারা গাছ গুলো নষ্ট করার দায়ে অভিযোগ করেন, অভিযুক্তরা হলো, মোঃ টুনু (৩৭) পিতা, মোঃ নজরুল ইসলাম (নজু গুড়াতি) মোঃ সোজামুদ্দিন ( সোজা) (৫৭), মোঃ ক্যাদের আলি (৫০) মোঃ নান্ডা মিয়া (৪৫) উভয়ের সাং গ্ৰামঃ-দক্ষিণ পানা পুকুরে (ফকির,পাড়া)গংগাচড়া, রংপুর ।


“প্রশাসনের নিকট আকুল আবেদন করছেন যে ,  অনতিলম্বে এই ভয়ঙ্কর ভূমি দরশু
পিশাচ দের কবল থেকে এই এলাকার সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনে যাপন  আনার ব্যবস্থা নেয়া হোক, খুব দ্রুত আইনের আওতায় আনা হোক।”তা না হলে ভবিষ্যতে আরো আইন বিরোধী কার্যকলাপ সংঘঠিত হওয়ার আশোংক্ষা আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here